অনলাইন ||  বাঘা বাঘা ৭ আইনজীবি বঁচাতে পারলোনা  অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলার ৩ আসামি কে।

অনলাইন || বাঘা বাঘা ৭ আইনজীবি বঁচাতে পারলোনা অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলার ৩ আসামি কে।

বাঘা বাঘা ৭ আইনজীবি বঁচাতে পারলোনা  অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলার ৩ আসামি কে।


শুক্রবার দ্বিতীয় দফার রিমান্ড শেষে দুপুরে আদালতে তোলা হয় অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলার ৩ আসামির টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ নিরাপদ ও নন্দদুলাল রক্ষীকে তিন আসামির ফের .৪ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা অন্যদিকে আসামিদের পক্ষে দাঁড়ানো চট্টগ্রাম থেকে আসা বাঘা বাঘা ৭ আইনজীবীসহ ১১ জন হত্যা মামলার নির্ধারিত সময়ের চেয়ে বেশি সময় রিমান্ডে রাখা হয়েছে জানিয়ে প্রায় একঘন্টা যুক্তিতর্ক তুলে ধরেন প্রদীপ লিয়াকৎ নন্দদুলালের আইনজীবীরা প্রদীপের দাখিল করা আবেদন জানান প্রদীপ একজন সৎ পুলিশ অফিসার অন্যদিকে সঠিক তদন্তের স্বার্থে রিমান্ডের যুক্তিতে অনর রাষ্ট্রপক্ষ শেষ পর্যন্ত ধোপে টেকেনি আসামিপক্ষের যুক্তি জামিন বাতিল করে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না করা এরপর আসামিপক্ষের আইনজীবীরা জানান তারা উচ্চ আদালতে যাবেন বিশ্লেষণ এবং সিআরপিসি ম্যাক্সিমাম ১৫ দিন পর্যন্ত একটি পুলিশ কাস্টডিতে থাকতে পারে যখন আজকে ২২ দিন হল


একদিন বানিয়েছো রিকোয়ারমেন্টস অফ সিআরপিসি nbr-bd আসামিপক্ষের অভিযোগ সঠিক নয় যে কয়েক দিন রিমান্ড পাওয়ার কথা আমরা মনে করি আমরা রিমান্ড মঞ্জুর করেছে .


ছবি গতকাল যাচাই করে যাতে আমরা ন্যায়বিচার বলতে পারতেছি না কি জায়গা আছে তাদের সামনে বসা দরকার তাদের উভয় পক্ষের বক্তব্য শোনা দরকার তাদেরকে আবার যদি মনে করিস না যেটা পেয়েছি এটা আমরা দেশের সরকারও প্রয়োজন মনাদের ওনাদের তদন্তের স্বার্থে আরো ইনফর্মেশন কালেক্ট করার জন্য বলা প্রয়োজন এ জন্য আদালতে আমরা যথোপযুক্ত উপস্থাপনা করেছিলেন তিনি শুনেছেন এবং ও বালির উপর ভিত্তি করে আমাদের আসামিকে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত


নন্দদুলাল কে শারীরিক পরীক্ষার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে ৩১ জুলাই থেকে ২৮ আগস্ট ২৮ দিন থেকে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সেনা নিহতের ঘটনার কোনো কূলকিনারা এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি তবে এরই মধ্যে কিন্তু তদন্ত কর্মকর্তারা বিভিন্ন পক্ষকে যেমন সামনাসামনি করেছেন তাদেরকে কয়েকদফা রিমান্ডেও নিয়েছেন তবে শেষ পর্যন্ত আসলে বিষয়টি কি কি ঘটেছিল এবং কেন ঘটেছিল সব কিছুর উত্তর জানতে শেষ পর্যন্ত হয়তো অপেক্ষা করতে হবে মামলার চার্জশিট পর্যন্ত সময় সংবাদ কক্সবাজার।


এই পোস্টগুলি আপনার ভাল লাগতে পারে