জর্জ ফ্লয়েড ঘটনার সর্বশেষ খবর

জর্জ ফ্লয়েড ঘটনার সর্বশেষ খবর

জর্জ ফ্লয়েড ঘটনার সর্বশেষ খবর

জর্জ ফ্লয়েড ঘটনার সর্বশেষ খবর
জর্জ ফ্লয়েড 


যুক্তরাষ্ট্রে চলমান বিক্ষোভের আজকে অষ্টম দিন এবং ইতিমধ্যে যুক্তরাষ্ট্র অন্য দেশের প্রায় চল্লিশটির বেশি শহরে কারফিউ জারি রয়েছে। এই মুহূর্তে আবার কি অবস্থা চলছে এবং জনগণ ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে তারা ঘরের মধ্যেই থাকছেন এবং কার্যধারা বের হচ্ছেন না। তবে সর্বশেষ প্রাপ্ত তথ্যে জানা যাচ্ছে যে পুরো যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় হাজারেরও বেশি মানুষকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুধুমাত্র কারফিউর আইন ভঙ্গ করার দায়।তবে আজকের এই অষ্টমদিনে আন্দোলনকারীরা কিন্তু কিছুটা হলেও শান্তিপূর্ণ অবস্থানে রয়েছে আমি একটু আগে লস এঞ্জেলেসের হলিউডের একটি সমাবেশস্থল থেকে ফিরে এসেছি সেখানে আমরা জানতে পারলাম যে, তারা কিন্তু বেশ আগের চেয়ে কিছুটা শান্তিপুর্ণ।

সহজে অবস্থানটা ছিল সেই জায়গা থেকে তারা কিন্তু কিছুটা সরে আসছে এবং ইতিমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এই আন্দোলনের সাথে তাদের একাত্মতা ঘোষণা করেছেন যেটি বলতে হচ্ছে যে আগামী আসন্ন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ইলেকশনের ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন তিনি কিন্তু বলেছে যে, এই মুহূর্তে জাতির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের একজন ভালো নেতৃত্ব দরকার । তিনি কিন্তু তা প্রকারের এই আন্দোলনকে একটা সহিংস আন্দোলনকে সমর্থন করেছেন এবং তিনি তার ব্যক্ত করেছেন আমরা আন্দোলনের পক্ষে রয়েছেন তিনি কামনা করেন।সশস্ত্র সেনাবাহিনীর মোতায়েন করবেন এবং সেক্ষেত্রে কিন্তু তারা দেশটিতে কোনো কার্পণ্য করবেন না তিনি বলেছেন।

বাংলাদেশী কমিউনিটির যারা রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে তারা কিন্তু আন্দোলনের সাথে একাত্মতা রয়েছেন তারা জানিয়েছেন তবে ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর আজকের পরিস্থিতির জন্য শুধু কাদায় করলে হবেনা আমরা নিজেরাও রাজনীতিবিদরা এটির জন্য দায়ী অর্থাৎ এই সহিংস ঘটনা যাতে আর না ঘটে তবে ইতিমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থা রয়েছে তার মধ্যে কিন্তু সর্বশেষ কথা না বললেই নয় আপনারা জানেন যুক্তরাষ্ট্রের পরিস্থিতি সারাবিশ্বের মধ্যে আক্রান্তের দিক থেকে এক নম্বর এবং সংখ্যার দিক থেকে যুক্তরাষ্ট্র নম্বর অবস্থানে রয়েছেন তবে যত সমাবেশ বিক্ষোভ এবং প্রতিবাদ মিছিলকারীরা যেসব জায়গায় জড়ো হচ্ছেন তাদের মধ্যে কিন্তু সেই সামাজিক দূরত্ব তারা কিন্তু মাক্স পরছেন না তারা কিন্তু একই সঙ্গে আন্দোলন চালাচ্ছে কিন্তু বিশেষজ্ঞরা যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

যুক্তরাষ্ট্রের জন্য আরেকটি ভয়াবহ বিপর্যয় বয়ে আনতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের বাসীর জন্য একটি বড় খারাপ খবর হবে তবে সেটি সবার মাথায় রাখতে হবে যুক্তরাষ্ট্রকে পরাস্ত অথবা জনগণের জানমালের নিরাপত্তা রক্ষায় সেনাবাহিনী পুলিশের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ হবে সেটি আমার কাছে সব যুক্তরাষ্ট্রের আন্দোলনের সর্বশেষ চলচ্চিত্র

এই পোস্টগুলি আপনার ভাল লাগতে পারে